জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা
৩৮দিন
:
০৮ঘণ্টা
:
০২মিনিট
:
৩৬সেকেন্ড
বেগমগঞ্জের নরোত্তমপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে মল নিক্ষেপ -

বেগমগঞ্জের নরোত্তমপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে মল নিক্ষেপ

1 min read
38 Views

ইউনুছ শিকদার, দৈনিক নোয়াখালী সময় ডট কম: নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের ১০ নং নরোত্তমপুর ইউনিয়ন আ’লীগের অস্থায়ী কার্যালয়ে মল (পায়খানা) নিক্ষেপের ঘটনা ঘটেছে।মঙ্গলবার দিবাগত রাতে নরোত্তমপুর ইউনিয়নের আ’লীগের আহবায়ক কমিটি নিয়ে দলীয় কোন্দলের জের ধরে এ ঘটনা ঘটে।বুধবার (২৫ নভেম্বর) দুপুর পৌনে ১টার দিকে খবর পেয়ে বেগমগঞ্জ থানার ওসি সহ একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।  নরোত্তমপুর ইউনিয়ন আ’লীগের আহবায়ক ও ইউপি চেয়ারম্যান হারুন অর রশীদ বাচ্চু দৈনিক নোয়াখালী সময় ডট কম কে জানান, নরোত্তমপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের পন্ডিত বাজারে ইউনিয়নের আ’লীগের অস্থায়ী দলীয় কার্যালয়। এই কার্যালয় থেকে ইউনিয়ন আ’লীগের কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। গত (৭ নভেম্বর) নরোত্তমপুর ইউনিয়ন আ’লীগের আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করে বেগমগঞ্জ উপজেলা আ’লীগ। ওই কমিটিতে স্থান না পেয়ে আগের কমিটির সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক আহবায়ক কমিটির সাথে বিরোধে জড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে বুধবার (২৫ নভেম্বর) বিকেল ৩টায় আহবায়ক কমিটি ইউনিয়ন আ’লীগের কার্যালয়ে বর্ধিত সভা ডাকে। পরে পাশাপাশি একটি ওয়ার্কশপে পাল্টাপাল্টি বর্ধিত সভার ডাক দেয় সাবেক কমিটির নেতৃবৃন্দ। তিনি অভিযোগ করেন , সাবেক ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি আবুল বাশার ও সাধারণ সম্পাদক সেলিমের নেতৃত্বে খোকন, হোসেন, রহমত, রাসেল উল্যাহ ও তাদের সাঙ্গপাঙ্গরা আমাদের বর্ধিত সভাকে পন্ড করতে রাতের অন্ধকারে কার্যালয়ের বাহিরে এবং তালা ভেঙ্গে ইউনিয়ন আ’লীগের কার্যালয়ের ভিতরে মল নিক্ষেপ করে। এক পর্যায়ে মলগুলো কার্যালয়ে থাকা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান ও প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবিতেও পড়ে।নরোত্তমপুর ইউনিয়ন আ’লীগের সাবেক সভাপতি আবুল বাশার জানান , তাদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ ভিত্তিহীন। এ ঘটনার সাথে সাবেক কমিটির নেতৃবৃন্দের নুন্যতম সম্পৃক্ততা নেই। এ ঘটনা সম্পর্কে তিনি কিছুই জানেন না। তিনি দাবি করেন, তিনি কয়েক দিন আগে ঘোষণা দিয়ে সক্রিয় রাজনীতি থেকে অবসর নিয়েছেন। বেগমগঞ্চ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ কামরুজ্জামান সিকদার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। অভিযোগ পেলে বিষয়টি খতিয়ে দেখে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।এ বিষয়ে জানতে বেগমগঞ্জ উপজেলা আ’লীগের সভাপতি ডা.এ বি এম জাফর উল্লার মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে, ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। অপরদিকে, উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মামুনুর রশিদ কিরণের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তারা ফোন রিভিস করেননি।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *